সৌদিতে অস্ত্র রফতানি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জার্মানির

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যা নিয়ে ধোঁয়াশা না কাটা পর্যন্ত জার্মানি সৌদি আরবে অস্ত্র রফতানি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নকেও (ইইউ) একই পথ অনুসরণের আহŸান জানিয়েছে। জার্মান অর্থমন্ত্রী পিটার আলতম্যায়ার সোমবার একথা বলেছেন। জেডডিএফ সম্প্রচার মাধ্যমকে তিনি বলেন, খাশোগির ঘটনায় সৌদি আরব এ পর্যন্ত যেসব ব্যাখ্যা দিয়েছে তা সন্তোষজনক নয়। আমরা কি ঘটেছে তা জানতে চাই। আর তাই সরকার এ মুহূর্তে সৌদি আরবে আর কোন অস্ত্র রফতানির অনুমোদন দেবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাছাড়া, খাশোগির ঘটনায় সৌদি আরবের ওপর চাপ বাড়ানোর জন্য ইইউ-এর অন্য দেশগুলোরও দেশটিতে অস্ত্র রফতানি বন্ধ করা উচিত বলেও আলতম্যায়ার মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘ইউরোপীয় দেশগুলো সবাই মিলে একটি যৌথ পদক্ষেপ নেয়াটা আমার মতে জরুরী। কারণ, সব ইউরোপীয় দেশ একাট্টা হলে রিয়াদ সরকারের ওপর এর একটা প্রভাব পড়বে। কিন্তু আমরা রফতানি বন্ধ করলেও অন্য দেশগুলো যদি সে শূন্যস্থান পূরণ করতে থাকে তাহলে এতে কোন কাজ হবে না।’

গত ২ অক্টোবরে তুরস্কে ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে খাশোগিকে হত্যাই করা হয়েছে বলে এতদিনে সরাসরি স্বীকার করেছে সৌদি আরব।

এর আগে কনস্যুলেট ভবনে ঢোকার পর থেকে খাশোগি নিখোঁজ হওয়ার সময় সৌদি আরব নানা সময়ে নানারকম কথা বলে এসেছে। খাশোগি নিখোঁজের বিষয়ে কিছু জানা নেই বলেও দেশটি এর আগে দাবি করেছে।

ঘটনার ১৭ দিন পর গত শনিবার কনস্যুলেট ভবনের ভেতরই খাশোগি নিহত হয়েছে বলে স্বীকার করে সৌদি আরব। কিন্তু আন্তর্জাতিক মহল তাদের দেয়া ঘটনার ব্যাখ্যা মেনে নেয়নি। এরপরের দুদিন সৌদি আরব একাধিকবার তাদের বিবৃতি পাল্টেছে। রবিবার সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুবাইর সরাসরি খাশোগি নিহত হয়েছেন জানিয়ে এ ঘটনাটিকে একটি ‘বড় ধরনের মারাত্মক ভুল’ বলে মন্তব্য করেন। তবে জুবাইর সৌদি ক্রাউন প্রিন্সকে বাঁচানোর চেষ্টা করে বলেন, তিনি কিছু জানতেন না। জার্মানির চ্যান্সেলর এ্যাঞ্জেলা মেরকেল রবিবার বলেছেন, খাশোগির বিষয়টি নিয়ে এ অস্পষ্টতা যতদিন না কাটবে ততদিন পর্যন্ত সৌদি আরবে অস্ত্র রফতানি বন্ধ রাখবে জার্মানি।

 

Please follow and like us:
comments

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *